পদত্যাগ করলেন ব্যাটিং কোচ ম্যাকেঞ্জি

শেয়ার করুনঃ

নাগরিক ডেস্ক : বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ব্যাটিং কোচ নিল ম্যাকেঞ্জি পদত্যাগ করেছেন। আজ সংবাদমাধ্যম ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে ম্যাকেঞ্জি জানান, সিদ্ধান্ত জানিয়ে ইতিমধ্যেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) চিঠি দিয়েছেন তিনি। সাবেক এই প্রোটিয়া ক্রিকেটার বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি পদত্যাগ করেছি। একমাত্র কারণ পরিবার থেকে দূরে থাকা। টাইগারদের অংশ হতে পারাটা ছিল আমার জন্য দারুণ ব্যাপার। বাংলাদেশ ক্রিকেট ও সেসব ক্রিকেটারের সঙ্গে কাজ করেছি তাদের জন্য আমার হৃদয়ে সবসময় একটা ভালোবাসার জায়গা থাকবে।’

প্রোটিয়া কোচের না আসা প্রসঙ্গে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান আকরাম খান এর আগেই অবশ্য বলেছিলেন, ‘আমরা যতটুকু জানি; তিনি (ম্যাকেঞ্জি) পারিবারিক কারণে আসছেন না। আমাদের তিনি শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দিয়ে না আসার কারণ ব্যাখা করবেন। আমরা এখন ম্যাকেঞ্জির বিকল্প খুঁজছি।’

২০১৮’র জুলাইয়ে ম্যাকেঞ্জিকে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দেয় বিসিবি।
ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে বিসিবির চুক্তি ছিল দিন ভিত্তিতে। অর্থাৎ যতদিন কাজ করবেন ততদিনের পারিশ্রমিক পাবেন তিনি। সে হিসাবে কেবল সাদা বলের সিরিজের আগে তার সান্নিধ্য পেতেন তামিম-মুশফিকরা। বিদেশের মাটিতে ভারত সিরিজ ছিল ম্যাকেঞ্জির প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট। আর টাইগারদের সঙ্গে তার শেষ অ্যাসাইমেন্ট ছিল ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ে বিপক্ষে সিরিজে।

বিসিবি শ্রীলঙ্কা সফরেও ম্যাকেঞ্জিকে চেয়েছিল। তিনি বাংলাদেশে আসতে চাননি এই অঞ্চলের করোনা পরিস্থিতির কারণে। শ্রীলঙ্কার সঙ্গে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট ২৪শে অক্টোবর শুরু হলেও কোয়ারেন্টিন নীতিমালা ও প্রস্তুতির কারণে বাংলাদেশ দল একমাস আগেই দ্বীপরাষ্ট্রটিতে পৌঁছাবে। নানা রকম নিয়ম কানুন আর বিধি নিষেধের কারণে এই সফরে দলের সঙ্গে যুক্ত হতে চানটি ম্যাকেঞ্জি। আর ইএসপিএনকে করোনাভীতির বিষয়টি বলেছেন তিনি।

শ্রীলঙ্কা সফরে বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে দেখা যেতে পারে সাবেক কিউই ব্যাটসম্যান ক্রেইগ ম্যাকমিলানকে। নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং কোচ হিসেবে লম্বা সময় সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। কিউইদের ব্যাটিং কোচ থাকাকালীন সময়ে নিউজিল্যান্ড ২০১৫ ও ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠে। এরপর আর ম্যাকমিলানের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করেনি নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *