কেন এমন পশুর প্রবৃত্তি, কেন এত যৌন কাম?- এসপি আবিদা

Spread the love

নাগরিক রিপোর্ট : রাজধানীর কলাবাগানে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ছাত্রী আনুশকা ‘ধর্ষণ ও হত্যার’ ঘটনায় দেশজুড়ে সমালোচনা ও ব্যাপক প্রতিবাদ চলছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সরব অনেকে। যে-যার জায়গা থেকে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন।
যৌন নির্যাতন, ধর্ষণ ও ধর্ষণের পর হত্যা এ রকম ঘটনা নিয়ে নানা অভিজ্ঞতা ও বাস্তবতার মুখোমুখি হতে হয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে। নিজের এমন অভিজ্ঞতা থেকে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন লালমনিরহাটের পুলিশ সুপার (এসপি) আবিদা সুলতানা। তার স্ট্যাটাসে নারীর ওপর সহিংসতার দৃশ্য ফুটে উঠেছে।

গতকাল রোববার ফেসবুকে দেওয়া আবিদা সুলতানার ফেসবুক স্ট্যাটাসটি নিচে তুলে ধরা হলো :

রাতে একজন মায়ের অনুভূতি কেমন হয়, যদি আদরের সন্তানকে অন্যের লালসার বলি হতে দেখতে হয়! মানুষের ভিতরে কেন এমন পশুর প্রবৃত্তি? কেন এত যৌন কাম? এর শেষ কোথায়?

পঞ্চান্ন-ষাট বছরের প্রবীণ, হাড্ডী কঙ্কালসার পনের-ষোল বছরের প্রতিবন্ধীকে তখন ধর্ষণ করে তখন তাকে কী বলা যায়? আবার এমন আচরণের জন অনুশোচনার লেশমাত্র নেই। বক্তব্যৃ আমার ভাতিজিকে আমি তো একটু আদর করতেই পারি!

আহ্! কী আজব!

মায়ের চোখের অঝোর শ্রাবণ আমাকে আহত করে! কী করব? কয়জন মাকে স্বস্তি দিতে পারি আমরা? কী ছেলে, কী মেয়ে… কখন কীভাবে কার লালসার শিকার হবে বোঝা কি সম্ভব?

রক্তাক্ত ছোট্ট ছেলেটিকে দেখে কী মা প্রথমে বুঝতে পেরেছিলেন যে, তারই সহপাঠী বড় ক্লাসের ছেলেটির শিকার হতে হবে তার সন্তানকে এমন করে? এমন অসুস্থতা কেন মানুষের মধ্যে? এই অসভ্যতার শেষ কী করে হবে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *