শিক্ষককে কান ধরে ওঠবস, মামলা

শেয়ার করুনঃ

নাগরিক রিপোর্ট: বরিশালে নার্সিং ইনস্টিটিউটের এক শিক্ষককে কান ধরে ওঠবস করিয়ে ছাত্রীর পা ধরে মাফ চাইতে বাধ্য করা হয়। এই ঘটনার ভিডিওচিত্র ধারন করে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে। বিষয়টি সর্বত্র আলোড়ন সৃস্টি করলে শিক্ষক মিজানুর রহমান সজল বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মঙ্গলবার রাতে মামলা দায়ের করেন। মামলায় নগরীর রূপাতলীর জমজম নার্সিং ইনস্টিটিউটের সাবেক শিক্ষার্থী ইমতিয়াজ ইমন ও তার স্ত্রী একই ইনস্টিটিউটের বর্তমান ছাত্রী মনিরা আক্তারসহ অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জনকে আসামি করা হয়েছে।
কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মো: নুরুল ইসলাম বলেন, পূর্ব শত্রæতার জেরে জমজম নার্সিং ইন্সটিটিউটের সাবেক খন্ডকালীন শিক্ষক মিজানুর রহমান সজলকে গত ২৫ আগস্ট নগরীর চৌমাথা থেকে ধরে গোরস্থান রোড এলাকায় নিয়ে যায় ওই ইন্সটিটিউটের সাবেক ছাত্র ইমতিয়াজ ইমন ও তার সহযোগীরা। এসময় তাকে শারীরিক নির্যাতন করে কান ধরিয়ে উঠবস করে ইমনের স্ত্রী একই ইনস্টিটিউটের বর্তমান ছাত্রী মনিরার পায়ে ধরে মাফ চাইতে বাধ্য করা হয়। ওই দৃশ্যের ভিডিও ধারন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া হয়। ওই শিক্ষক বরিশাল থেকে গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফলে চলে যান। মঙ্গলবার তাকে থানায় ডেকে মামলা নেয়া হয়েছে।
এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে শিক্ষক মিজানুর রহমান সজল বাদী হয়ে সাবেক ছাত্র ইমন ও তার স্ত্রী বর্তমান ছাত্রী মনিরার নামোল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৭/৮ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। ওসি জানান, আসামীদের গ্রেফতারের চেস্টা চলছে।
প্রসঙ্গত, গত ১৫ সেপ্টেম্বর আলোকিত বাংলাদেশের প্রথম পাতায় ‘বরিশালে নার্সিং শিক্ষককে কান ধরে ওঠবস, ভিডিও ভাইরাল’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হলে বিষয়টি নিয়ে সর্বত্র আলোড়ন ঘটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *